ভর্তি চলছে...

Diploma in Engineering

কম্পিউটার টেকনোলজি

বিংশ শতাব্দীর আবিষ্কারের একটা বড় সাফল্য হল কম্পিউটার । বাংলাদেশে কম্পিউটার ব্যবহার শুরু হয় ষাটের দশকে এবং নব্বই দশকে তাব ব্যাপকতা লাভ করে আশির দশকের পূর্বে এদেশে কম্পিউটার বিষয়ের উপর শিক্ষার কোনো সুযোগ ছিল না নব্বই দশকের শুরুতেই বাংলাদেশ আনুষ্ঠানিক ও প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কম্পিউটার শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয় বর্তমানে বাংলাদেশে সহ গোটা বিশ্বে এর ব্যবহার ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে সুতরাং এ বিষয়ের উপর ডিপ্লোমা পাশ করে চাকরি সহ সকল ক্ষেত্রে নিজের জীবনে সফলতা আনা সম্ভব ।

ইলেকট্রনিক্স টেকনোলজি

প্রচলিত পদ্ধতির পরিবর্তে ডিজিটাল পদ্ধতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে ইলেক্ট্রনিক টেকনোলজি এর ভূমিকা ব্যাপক যুগের পরিবর্তন সর্বদাই ইলেকট্রনিক্সের ক্রমবিকাশ এর মাধ্যমে সংঘটিত হয়েছে ইলেকট্রনিক সামগ্রী মানুষের জীবনে এনে দিয়েছে অনাবিল শান্তি তাই বর্তমানে ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারদের চাকরির ক্ষেত্রে এসেছে বিশালতা সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন সেক্টরে রয়েছে ইঞ্জিনিয়ারদের চাকরির সুবিধা নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে উল্লেখযোগ্য উল্লেখযোগ্য সেক্টর সমূহ অ্যাসেট টেক্স ইঞ্জিন ইন্ডাস্ট্রি ইন্ডাস্ট্রি ইন্ডাস্ট্রি কারিগরি শিক্ষার উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ এর উদ্দেশ্যে ডিপ্লোমা ইন ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারদের ব্যাপক চাকরির ক্ষেত্র সবাইকে উৎসাহিত করবে জাতীয় উন্নয়নে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের ভূমিকা অনস্বীকার্য ।

টেলিকমিউনিকেশন টেকনোলজি

বিশ্বে যোগাযোগ ব্যবস্থার ক্ষেত্রে টেলিকমিউনিকেশন এক নবজাগরণ সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশের পেক্ষাপটে মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা এ অগ্রগতির বাস্তব প্রমাণ যেখানে রয়েছে অজস্র টেলি কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারের চাকরির সুযোগ এক সমীক্ষায় দেখা গেছে আমাদের দেশে প্রয়োজনের তুলনায় মাত্র 15 ভাগ টেলিকমিউনিকেশন ডিপ্লোমা টেকনোলজি রয়েছে হলে বাংলাদেশেই রয়েছে এ বিভাগের এক উজ্জ্বল সম্ভাবনা । ইলেকট্রিক্যাল টেকনোলজি কারিগরি জগতে সব শিল্প কারখানার মূল চালিকা শক্তি হল বিদ্যুৎ বিদ্যুৎ ব্যতীত বর্তমান সভ্যতার অগ্রগতি ও উন্নতি কল্পনা করা যায় না বিদ্যুৎ মানুষের আনন্দ বিনোদন কে অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে টেলিভিশন টেলিফোন টেলিগ্রাফ মোবাইল পৃথিবী কে করেছে অনেক ছোট 50 মিটার মাটির তল দিয়ে হাজার হাজার চিঠির হলে আর যাত্রী নিয়ে ছুটে চলেছে চালক ও গার্ড বিহীন রেলগাড়ি এসব বিদ্যুতের কারণে সম্ভব হয়েছে সুতরাং বর্তমান দেশে বিদেশে ডিপ্লোমা ইন ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে ।

সিভিল টেকনোলজি

দেশে বিদেশে বড় বড় ইমারত হাইওয়ে হাইওয়ে সহ ছোটখাট কাজের পিছনে দ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের অবদান অনেক একটি দেশের ভাবমূর্তিকে বিশ্বের বুকে ফুটিয়ে তোলার জন্য এর স্থাপত্য ও যোগাযোগ কাঠামো সর্বাধিক ভূমিকা পালন করে উদাহরণস্বরূপ মালেশিয়ার কথা উল্লেখ করা যেতে পারে এ খাতকে উন্নয়নের মাধ্যমে পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে সেই সাথে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করেছে অথচ এ কাঠামোকে বাস্তব গ্রুপের বাস্তবে রূপদানের ক্ষেত্রে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা অন্যান্য কারিগরী পর্যায়ের জনশক্তির চেয়ে অনেক বেশি ।

মেকানিকাল টেকনোলজি

মেকানিকাল টেকনোলজি মানব সভ্যতার উষালগ্ন থেকে আজকের আধুনিক উন্নয়নের অংশীদারিত্বে মেকানিকাল টেকনোলজি এর গুরুত্ব অপরিসীম প্রস্তর যুগের চিন্তাধারার সাথে তাল মিলিয়ে পর্যায়ক্রমিক যান্ত্রিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় মেকানিকাল টেকনোলজি প্রবাদ আছে যেখানে চাকা ঘোরে সেখানেই যন্ত্রকৌশল প্রকৌশলীদের অবদান বিদ্যমান একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা এবং বর্তমান সরকারের রূপকল্প বাস্তবায়নে কারিগরি প্রযুক্তিবিদ্যার অবদান রাখতে পারে জনবহুল আমাদের দেশের জনসংখ্যাকে জনসম্পদে পরিণত করার লক্ষ্যে মেকানিক্যাল টেকনোলজি আবির্ভাব শক্তি দ্বারা পরিচালিত হয়ে যে সকল যন্ত্রপাতি দ্রুতগতিতে কার্য সম্পাদন করে তাকে এই যান্ত্রিক বা মেকানিকাল বলে মেকানিক্যাল টেকনোলজি থেকে ব্যবহারিক কাজ শিখে কর্মসংস্থান করা সম্ভব এছাড়া ডিপ্লোমা টেকনোলজি শেষ করে সরকারি বেসরকারি চাকরি সহ উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে ।

মেকানিকাল টেকনোলজি

মেকানিকাল টেকনোলজি মানব সভ্যতার উষালগ্ন থেকে আজকের আধুনিক উন্নয়নের অংশীদারিত্বে মেকানিকাল টেকনোলজি এর গুরুত্ব অপরিসীম প্রস্তর যুগের চিন্তাধারার সাথে তাল মিলিয়ে পর্যায়ক্রমিক যান্ত্রিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় মেকানিকাল টেকনোলজি প্রবাদ আছে যেখানে চাকা ঘোরে সেখানেই যন্ত্রকৌশল প্রকৌশলীদের অবদান বিদ্যমান একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা এবং বর্তমান সরকারের রূপকল্প বাস্তবায়নে কারিগরি প্রযুক্তিবিদ্যার অবদান রাখতে পারে জনবহুল আমাদের দেশের জনসংখ্যাকে জনসম্পদে পরিণত করার লক্ষ্যে মেকানিক্যাল টেকনোলজি আবির্ভাব শক্তি দ্বারা পরিচালিত হয়ে যে সকল যন্ত্রপাতি দ্রুতগতিতে কার্য সম্পাদন করে তাকে এই যান্ত্রিক বা মেকানিকাল বলে মেকানিক্যাল টেকনোলজি থেকে ব্যবহারিক কাজ শিখে কর্মসংস্থান করা সম্ভব এছাড়া ডিপ্লোমা টেকনোলজি শেষ করে সরকারি বেসরকারি চাকরি সহ উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে ।

মেরিন টেকনোলজি

শিপিং এর ক্ষেত্র হলো বিশ্ব অর্থনীতির মানদন্ড বা চাকা পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যাওয়ার জন্য বর্তমান বিশ্বের অর্থনীতি প্রায় সম্পূর্ণরূপে সমুদ্র নির্ভর বিশ্বে সর্বমোট পণ্য পরিবহনের 85 থেকে 90 শতাংশ সমুদ্রপথে পরিবহন হয়ে থাকে বলা হয় বা বলা হয়ে থাকে যদি বিশ্বের সকল জাহাজ একদিনের জন্য বন্ধ হয়ে যায় তাহলে বিশ্বের অর্ধেক জনগোষ্ঠীকে অনাহারে থাকতে হবে মিল-কারখানা সিমেন্ট ফ্যাক্টরি গার্মেন্ট ডিজাইন গার্মেন্টস শিল্প বৈদ্যুতিক পাওয়ার প্লান্ট সহ সকল যান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রায় বন্ধ হয়ে পড়বে এজন্যই জাহাজের কোন হরতাল হয়না বহির্বিশ্বের সাথে মানুষের প্রয়োজনীয় পণ্য ও কল কারখানার কাঁচামাল সহ যাবতীয় দ্রব্য আমদানি রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাবে পৃথিবী অচল হয়ে পড়বে আর সেই সকল পর্বত সম বাণিজ্যিক জাহাজ প্রত্যক্ষভাবে পরিচিত হয় সার্টিফাইড মেরিন অফিসার দ্বারা বিশ্বের শিপিং সংক্রান্ত সকল পরিচালনা মুলক কার্যক্রম আই এম ও ইন্টারন্যাশনাল লন্ডন থেকে পরিচালিত হয় আর পৃথিবীর সকল দেশের ডিপার্টমেন্ট অফ আই এম এর অধীনস্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি চাকুরীর প্রফেশনাল ডিগ্রী মেরিন টেকনোলজি যা বিশ্বের দ্বিতীয় ভাষার মর্যাদা অর্জন করেছে প্রথম প্রেসার এর নটিক্যাল তৃতীয় পেশা মেডিকেল একমাত্র মেরিন পেশাতেই আছে বিশ্ব ভ্রমণ করার সুযোগ বর্তমানে বাংলাদেশে কানাডা ফ্রান্স জার্মানি ইতালি ভারত ব্রাজিল নেদারল্যান্ড সুইডেন ইত্যাদি রাষ্ট্রের সাথে একই সারিতে লার্জেস্ট ইন্টারেস্ট ইঞ্জিন ইন্টারন্যাশনাল ক্যাটাগরিতে গর্বের সাথে অবস্থান করছে যা আন্তর্জাতিক নৌ বাণিজ্য বাংলাদেশের গুরুত্ব প্রতিফলিত হয় আর আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই কর্মক্ষেত্রের সফলতা ধরে রাখার জন্য প্রয়োজন যোগ্য সৎ পরিশ্রমী সুবিবেচক বিচক্ষণ স্থির বুদ্ধি সম্পন্ন দক্ষ মেরিন ইঞ্জিনিয়ার অফিসার বিশ্ব অর্থনীতির চাকা যদি হয় শিপিং আর সেই শিপিংয়ের পরিবাহক যদি হয় সমুদ্রগামী জাহাজ তাহলে বলা যায় এই পৃথিবীটা ঘুরছে সমুদ্রচারী দের কারনে ।

টেক্সটাইল টেকনোলজি

বস্ত্র শিল্প বিকাশের জন্য টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের ভূমিকা অনেক বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের ব্যাকওয়ার্ড শিল্প হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে স্পিনিং মিলস ডাইনিং ফিনিশিং মিলস নিট কম্পোজিট মিলস এসব শিল্প প্রতিষ্ঠানে উৎপাদিত এসব শিল্প প্রতিষ্ঠানে উৎপাদিত পণ্যকে গুণগত ও সমৃদ্ধশালী করার পিছনে যারা বড় অবদান রেখেছেন তারা হল টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার বর্তমানে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের সংখ্যা চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল দপ্তরের এক সমীক্ষা অনুযায়ী বর্তমান টেক্সটাইল শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের অভাবে বাধ্য হয়ে অন্য শিক্ষায় শিক্ষিত লোকদের নিয়োগ দিতে হচ্ছে আগামী 10 বছরে সরকার এই সেক্টরের উন্নয়নে যে পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে তাতে প্রথম তিন বছরের ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার দরকার 25 হাজার 750 জন কিন্তু আছে হাজার হাজার কিন্তু আছে হাজার 898 জন এম এস সি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার দরকার 927 জন আছে 71 জন টেক্সটাইল পিএইচডি ডিগ্রিধারী দরকার 240 জন আছে 18 জন অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে এ খাতে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার জন্য ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে ।

গার্মেন্টস ডিজাইন অ্যান্ড প্যাটার্ন মেকিং

বাংলাদেশ বিশ্বের একটি তৈরি পোশাক শিল্পের রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে বর্তমানে তৈরি পোশাক শিল্প থেকে মোট বৈদেশিক মুদ্রা আয় 76 শতাংশ এক হাত থেকে আসছে এটি বাংলাদেশের জন্য খাতভিত্তিক রপ্তানি আয়ের ক্ষেত্রে একটি বিশাল অবদান 2005 সালে এসে কোটা ও শুল্কমুক্ত বিশ্বে প্রবেশ করায় বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্প খাত বা গার্মেন্টস সেক্টরের সম্ভাবনা আরও উন্মোচিত হয়েছে সুতরাং গার্মেন্ট ডিজাইন অ্যান্ড প্যাটার্ন মেকিং টেকনোলজি পাস করার পর দেশে বিদেশে চাকরির অনেক সুযোগ রয়েছে ।

কৃষি ডিপ্লোমা

কৃষিনির্ভর আমাদের দেশকে উন্নত প্রযুক্তি কে কাজে লাগিয়ে উন্নয়নের অগ্রশি মাই পৌঁছানোর লক্ষ্যে যারা কাজ করছে তারা হচ্ছে মধ্যম মানের কৃষিবিদ যুগোপযোগী শিক্ষা কম হওয়ায় এদেরও রয়েছে কর্মসংস্থানের ব্যাপক পরিসর বিভিন্ন মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশা সহ মধ্যমানের কৃষিবিদদের রয়েছে সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে চাকরির সুযোগ বেকারত্ব দূরীকরণসহ তৈরীর লক্ষ্যে সিটি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে চালু করতে যাচ্ছে ।

মেডিকেল টেকনোলজি ( ডেন্টাল ফার্মেসি নার্সিং প্যাথলজি রেডিওলজি এন্ড ইমেজিং )

বাংলাদেশ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট চাহিদার তুলনায় সরবরাহ খুবই অপ্রতুল বর্তমানে দেশে সরকারি ও বেসরকারি এবং বিভিন্ন এনজিও এর উদ্যোগে স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানের দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে এসব বর্ধমান হাসপাতাল ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ঔষধ কোম্পানিতে দক্ষ জনশক্তির তীব্র সংকট চলছে দেশের ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার স্বাস্থ্য সেবার চাহিদা দিন দিন ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে সুতরাং মেডিকেল টেকনোলজি থেকে পাস করার পর সরকারি বেসরকারি চাকরি না করে ভালো উপার্জন করা সম্ভব।

© CPI 2019